May 19, 2024
কি খেলে মাথা ঘোরা কমবে। মাথা ঘোরা চোখে ঝাপসা দেখার কারন কি

সাধারণত মাথা ঘোরা কামাতে বিভিন্ন ধরনের খাবার সাহায্য করতে পারে । কি খেলে মাথা ঘোরা কমবে? মাথা ঘোরা ও চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি?  এমন প্রশ্নের জবাব  যদি দিতে যাই তাহলে দেখা যায় যে এমন কতগুলো খাবার রয়েছে যে সকল খাবার খেলে মাথা ঘোরা ও চোখে ঝাপসা দেখা সারা জীবনের জন্য কমে যাবে । 

অনেক সময় দেখা যায়  যখন কেউ দীর্ঘ সময় ধরে বসে থেকে হঠাৎ করে  দাড় হয় তখনই সুখী ঝাপসা দেখা এবং মাথা ঘোরার লক্ষণ টি দেখা দেয় । মূলত এই সমস্যাটি  দেখা দেয় বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন এর অভাবে । তাহলে আসুন জেনে নেয়া যাক এই সকল সমস্যা থেকে কিভাবে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে  ।  প্রথমত জেনে নেই,

কি খেলে মাথা ঘোরা কমবেঃ

শর্করা জাতীয় খাদ্য খেলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যেতে পারে ।  এই জাতীয় খাদ্য রক্ত রক্তের সিনিয়র গ্লোকোষের মাত্রা বাড়াতে সাহায্য করে যা মাথা ঘোরাও কমাতে ব্যাপক সাড়া ফেলে । এছাড়াও প্রোটিন জাতীয় খাদ্য খাওয়া উচিত । কারণ প্রোটিন রক্তের মধ্যে অক্সিজেন ও পুষ্টি বহন করতে সাহায্য করে যা মাথা ঘোরা  বন্ধ করতে  কাজ করে । এছাড়াও প্রচুর পরিমাণে পানি পান করা উচিত । পানি মানব দেহের হাইড্রেটেড  ধরে রাখতে সাহায্য করে যা মাথা ঘোরা কমাতে পারি । এছাড়া আরো কিছু পুষ্টি উপাদান খাদ্য রয়েছে যে সকল খাদ্য এই সমস্যা থেকে বের হয়ে আসতে ।  তাই চলুন দেখে নিয়ে যাক খাদ্যগুলো

পুষ্টিকর ফলগুলো শাকসবজিঃ

  • ফলের মধ্যে রয়েছেঃ  আপেল কলা আঙ্গুর কমলা আম পেঁপে ।
  • সবজির মধ্যে রয়েছেঃ গাজর শসা টমেটো পালং শাক ।
  • দুগ্ধজাত খাবারের মধ্যে রয়েছেঃ  দুধ দই পনির ইত্যাদি 
  • মাংসের মধ্যে  রয়েছেঃ মুরগির মাংস গরুর মাংস ও মাছ ।
  • এছাড়াও রয়েছে ডিম
  •  ডাল
  •  বাদাম

এছাড়াও আরো অনেক নিয়ম কানুন রয়েছে যেগুলো আপনার মাথা ঘোরা কমাতে সাহায্য করবে প্রতিদিন নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে এবং পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুমাতে হবে । 

আরও পড়ুন

চোখে ঝাপসা দেখার কারণ কি?

মূলত চোখে ঝাপসা দেখার মূল কারণ হচ্ছে পেশার লো হওয়ার জন্য । এছাড়াও এছাড়া আর একটি কারণ হতে পারে সেটা হচ্ছে শরীরের মধ্যে ভিটামিনের অভাব । শরীরের মধ্যে রক্তচাপ নিম্ন থাকার কারণে এই সমস্যাটি দেখা দিচ্ছে । 

 তাছাড়াও রয়েছে শরীর যদি দুর্বল হয়ে পড়ে বা রক্তশূন্য তে দেখা দেয় এর কারণে এটি হতে পারে ।  এর থেকে মুক্তির উপায় আছে একটাই সেটা হচ্ছে উপরে যে সকল খাদ্যের তালিকা দেওয়া আছে সেই সকল খাদ্য তালিকা নিয়মিত গ্রহণ করা ।  আর প্রচুর পরিমাণে বিশ্রাম এবং ঘুমানো প্রয়োজন । এছাড়াও প্রতিদিন পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ করা বা সবুজ শাকসবজি । প্রেসার লো বা নিম্ন রক্তচাপ থাকলে হাঁসের ডিম অত্যন্ত কার্যকরী এর জন্য ।  প্রতিদিন সকালে একটি  খেলে সাত দিনের মধ্যে এই সমস্যার সমাধান আসবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *