April 16, 2024
ঢোক গিলতে গলা ব্যথার ওষুধ এর নাম । ঢোক গিলতে গলা ব্যাথা ঘরোয়া উপায় ও প্রতিকার ।

অনেক সময় আমাদের মাঝে দেখা যায় বিশেষ করে রাতে যখন ঘুম ভেঙ্গে যায় বা সকালে ঢোক গিলতে গলায়  ব্যাথা করে । বিশেষ করে শীতের দিনে  এটি বেশি দেখা যায় । তাই আজকে আমরা জানবো ঢোক গিলতে গলা ব্যথার ওষুধ এর নাম  এবং  ঢোক গিলতে গলা ব্যথার ঘরোয়া উপায় ও প্রতিকার কি  এই সম্পর্কে ।

ঢোক গিলতে গলা ব্যথার ওষুধ বিভিন্ন রকমের হয়ে থাকে ।  আজকে আপনারা জানাবো যে সকল ওষুধ খেলে এ সমস্যা থেকেই মুক্তি পেতে পারে সে সকল ওষুধের নাম । অনেক সময় দেখা যায়  গলা শুকিয়ে গেলে ঢুক মিলতে ব্যথা অনুভব হয় । এর কারণেও যদি এ সকল ওষুধ খান তাহলে পরবর্তীতে সমস্যা হতে পারে ।  তাই আপাতত চলুন জেনে নেয়া যাক  এই সমস্যা থেকে মুক্তির উপায় কি । 

ঢোক গিলতে গলা ব্যথার ওষুধঃ

  •  ব্যথার জন্য এই সকল ওষুধ সেবন করতে পারবেন ।  প্যারাসিটাম, আইবোপ্রোফেন, অ্যাসিটামিনোফেন- ডাইক্লোফেনাক । এইসব ট্যাবলেট সেবন করলে ব্যথা কমতে পারে ।
  • গলা ব্যথার জন্য এ সকল ওষুধ সেবন করবেন । এন্টি ইনফ্লামেটরি বা অ্যান্টিসেপটিক  এসব ওষুধ খেলে গলা ব্যথা কমে যায় । 
  • যদি গলা ব্যথার কারণ ব্যাকটেরিয়া হয় তাহলে আপনাকে এন্টিবায়োটিক ট্যাবলেট এর প্রয়োজন পড়বে ।  ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করে এই সকল এন্টিবায়োটিক সেবন করবেন । 

উপরের যে ব্যাথা নাশক ওষুধগুলো নাম দেওয়া হয়েছে সাধারণত   প্যারাসিটাম, আইবোপ্রোফেন, অ্যাসিটামিনোফেন- ডাইক্লোফেনাক এইসব ট্যাবলেট বেদনার ওষুধ যা  আপনার  ঢোক গিলতে গলা ব্যথা  কমাতে অনেক সাহায্য করতে পারে ।  সাধারণত এই ওষুধ  ওষুধগুলো এইমাত্র গলা ব্যাথার সারাতে বা প্রদাহ কমাতে সাহায্য করে । 

আরও পড়ুন

ঢোক গিলতে গলায় ব্যাথাঃ

আপনি যদি এন্টিবায়োটিক ট্যাবলেট সেবন করেন তাহলে আপনাকে প্রথমে দেখে নিতে এই ব্যথাটি আসলে কি ।  ব্যাকটেরিয়া থেকে সৃষ্টি  যদি এটি ব্যাকটেরিয়ার কারণে ব্যাথা হয় তাহলে আপনি এন্টিবেটিক ট্যাবলেট সেবন করতে পারবেন ।  তাছাড়া আপনি অযথা অ্যান্টিবায়োটিক ট্যাবলেট সেবন করা থেকে বিরত থাকুন ।  সাধারণত  প্যারাসিটাম, আইবোপ্রোফেন, অ্যাসিটামিনোফেন- ডাইক্লোফেনাক এ সকল ট্যাবলেট সেবন করুন । যদি এ সকালের ট্যাবলেট আপনার ব্যথা না করে তাহলে ডাক্তারের সাথে কথা বলে এন্টিবায়োটিক ট্যাবলেট খেতে পারেন । 

 ঢোক গিলতে গলা ব্যথার ঘরোয়া উপায় ও প্রতিকারঃ

ওষুধ ছাড়া আর কিছু ঘরোয়া উপায় রয়েছে যেগুলোর দ্বারা আপনি আপনারা গলা ব্যথা কমাতে পারেন ।  আমার প্রতিনিহত যেগুলো তরকারি বা মসলা হিসেবে ব্যবহার করে থাকি সেগুলো দ্বারা এই সমস্যার সমাধান করা যেতে পারে । আসুন তাহলে দেখতে নেই কিভাবে ঘরোয়া উপায় এই সংসার সমাধান করা যায় ।   এই সমস্যার সমাধান বা ঘরোয়া উপায় গুলো নিম্নলিখিত করা হলো;

  • হালকা কুসুম গরম পানিতে এক চামচ লবণ মিশিয়ে গর্গল করলে কলা ব্যথার উপকার পাওয়া যায় । 
  • এছাড়া আপনি চা পান করতে পারেন । চা পান করলে গলা ব্যথার উপকার হয় ।  এছাড়াও চায়ের মধ্যে আপনি যোগ করলে আরো বেশি উপকার পেতে পারেন । 
  • তাছাড়াও আপনি আদা চা খেতে পারেন ।  লাল চায়ের মধ্যে এক টুকরা আদা গুঁড়ো করে বা পিসি চায়ের মধ্যে দিয়ে খেতে পারেন ।  দেখবেন যে গলা ব্যথার  অনেকটা উপকার  হয়েছে ।
  • এরপর আপনি মধু খেতে পারেন ।  কেননা মধুতে রয়েছে আন্টি ইনফ্লোমেটরি  এবং এন্টিসেপটিক এর মত  বৈশিষ্ট্য যা গলা ব্যথা  উপশম করতে সাহায্য করে । 

উপরের সকল ফর্মুলা মেনেও যদি আপনার কোন রকম গলা ব্যথা না কমে তাহলে অবশ্যই একজন ভালো ডাক্তারের পরামর্শ নিবেন ।  এবং সকল পরামর্শ দিবে সে সকল পরামর্শ অনুযায়ী ওষুধ সেবন করলে আপনার গলা ব্যথা সেড়ে যেতে পারে । গলা ব্যথা যে এই সমস্ত কারণেই করে তা কিন্তু না এর থেকে আরো বড় কিছু সমস্যা হতে পারে  ।  তাই যেকোনো রোগকে আপনি অবহেলা না করে এর সঠিক চিকিৎসা করুন এবং যত দ্রুত পারেন । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *