May 18, 2024
পিত্তথলির পাথর গলানোর ঔষধ । পিত্তথলির পাথর অপারেশনের খরচ ।

পিত্তথলির পাথর গলানোর ঔষুধ রয়েছে  । এছাড়া আজকে জানবো  পিত্তথলির পাথর  অপারেশনের  খরচ কত /পিত্তথলির পাথর কেন হয়? ।  শুধুমাত্র একটি ওষুধের মাধ্যেমে আপনার পিত্তথলির পাথর গলাতে পারবেন । সাধারনত অ্যাসিডের মাধ্যেমে এটি নির্মূল করা সম্ভব । আর সেই ঔষুধটির নাম হচ্ছে “বাইল অ্যাসিড ওষুধ” ।

এই ঔষধ সাধারনত পিত্তথলির পাথর ভেঙ্গে ফেলার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ন ও কার্যকারী ঔষধ । এছাড়াও এই ঔষধ গুলো পিত্তথলির মধ্যে অ্যাসিডের মাত্রা বাড়িয়ে পাথরকে ছোট করে এবং ধিরে ধিরে নষ্ট করে । এই ঔষধটিতে অ্যাসিডের মাত্রা বেশি থাকায় পিত্তথলির পাথর গলাতে খুব সহজ হয় । এছাড়াও আরু কিছু ঔষুধ রয়েছে যা পিত্তের পাথর গলাতে পারে তাই চলুন দেখে আসি সেই সকল ট্যাবলেট গুলি । নিচে ট্যাবলেট গুলির তালিকা নিম্নলিখিত করা হলো ,

পিত্তথলির পাথর গলানোর ঔষুধঃ

  • উরসোডিওক্সিকোলিক এসিড 
  • চেনোডিয়াল 
  • অন্যান্য ওষুধ ও রয়েছে ।

এছাড়াও আরও অন্যান্য অনেক ঔষুধ রয়েছে । এই ঔষধ গুলি সাধারনত খুব কম কাজ করে  । তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে নিচের এই ঔষধের ব্যবহার কাজে আসে । দেখা যাচ্ছে যে সাধারন সমস্যার জন্য এই মেডিসিন গুলো ব্যবহার করা যেতে পারে । তাই আসুন দেখে নেই কি কি ঔষধ নিম্নলিখিত করা আছে, 

নিম্নলিখিত কিছু ঔষুধঃ

  1. ফিব্রিক এসিড ।
  2. নিকোলিট ।

উপরে যে সকল ঔষধের নাম দেওয়া হয়েছে সেই সকল ঔষধ খাওয়ার আগে অব্শ্যই একজন ভাল অবিজ্ঞ ডাক্টারের সাথে পরামর্শ করবেন কেননা আপনার সমস্যার উপর নির্ভর করে ওষুধ সেবন করতে হবে । 

আরও পড়ুন

ঔষুধ ছাড়াও পিত্তথলির পাথর গঠন হওয়া থেকে বা ঝুকি কমাতে নিচে কিছু পদক্ষেপ দেওয়া হলো সেই পদক্ষেপগুলি নিয়মিত মেনে চললে অনেকটা ঝুকি কমতে পারে । আসুন দেখে নেই ,

দিকনির্দেশনা ঃ

  1. স্বাস্থ্যকর বা স্বাভাবিক ওজন বজায় রাখা ।  একটা সাধারন মানুষের যতোটুকু ওজন থাকার কথা ততটুকু ওজন বজায় রাখা । 
  2.  এরপর রয়েছে নিয়মিত ব্যায়াম ।  নিয়মিত ব্যায়াম করলে এর ঝুঁকি থেকে বাঁচা যায় । 
  3.  এছাড়া পুষ্টিকর খাদ্য গ্রহণ করা ।
  4. পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করা ।
  5. যে সকল খাবার থেকে বিরত থাকবেন ।  অতিরিক্ত শরীরযুক্ত খাবার চর্বিযুক্ত খাবার ,  এরপর রয়েছে ভাজা খাবার এবং প্রক্রিয়াজাত খাবার পরিহার করার চেষ্টা করবেন । 

 

 এবার আসুন জেনে নেয়া যাক  পিত্তথলির পাথর  কেন হয় । পিত্তথলির পাথর হওয়া  মূলত কয়েকটি কারণ হতে পারে ।  সেই কারণগুলো নিম্নলিখিত আলোচনা করা হয়েছে  ।

 পিত্তথলির পাথর কেন হয় ঃ

পিত্তথলির পাথর হওয়ার মূল কারণ হচ্ছে  অতিরিক্ত চর্বি শরীরের মধ্যে থাকার কারণে ।  এছাড়াও আরেকটি কারণ রয়েছে সেটি হচ্ছে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি গ্রহণ না করা ।  পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি গ্রহণ না করার ফলে পিত্তথলির পাথর হওয়ার সম্ভাবনা থাকে ।  এছাড়া আর একটি কারণ রয়েছে শরীরের মধ্যে অতিরিক্ত পরিমাণে রক্ত ভাঙ্গলে এই পাথরগুলো হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে ।  এ সকল সমস্যার কারণে পিত্তথলির পাথর হয় । 

 

এরপর জানব পিত্তথলির পাথর অপারেশনের খরচ কত ।  মূলত পিত্তথলির পাথর অপারেশনের খরচ নির্ভর করে হসপিটালের উপরে ।  বিভিন্ন হসপিটালে বিভিন্ন রকমের দাম নিয়ে থাকে । তাই আসুন জেনে নেই পিত্তথলির অপারেশনের খরচ কত পড়তে পারে ,

পিত্তথলির অপারেশনের খরচ কতঃ

  1.  সাধারণত দেখা যাচ্ছে যে ঢাকা মেডিকেল হসপিটালেঃ  ৫০ থেকে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত নিয়ে থাকে ।
  2. চট্টগ্রাম হসপিটালেঃ  ৪০ থেকে ৯০ হাজার টাকা নিয়ে থাকে
  3.   এরপর রয়েছে রাজশাহী হাসপাতালে 30 থেকে 70 হাজার টাকার মতো নিতে পারে।  

এছাড়া আপনি হসপিটালে সঠিক তথ্য পেতে বিভিন্ন হসপিটালে কল করে জানতে পারেন ।  তবে আমাদের ধারণা মোতাবেক এতগুলো টাকা নিতে পারে ।  আপনি সম্পূর্ণভাবে নিশ্চিত হতে হসপিটালে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন ।  মূলত এই   পিত্তথলির অপারেশনের খরচ কত ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *