June 14, 2024
বক্তব্য শুরুতে কি বলতে হয়? বিদায়ী বক্তব্য ।

বক্তব্য যা সবাই দিতে পারে না |  বক্তব্য দিতে হলে শ্রোতাদের মন এবং দৃষ্টি আকর্ষণ যা আপনার করে নিতে হবে তা বক্তব্যের মাধ্যমে |  অনেকেই জানিনা বক্তব্য শুরুতে কি করতে হয়?  এছাড়াও বিদায়ী বক্তব্য কিভাবে দিতে হয় সেটাও অনেকের অজানা ।  তাই আপনাদের আজকে এমন কিছু টিপস দিয়ে যাব যে সকল টিপস ব্যবহার করে আপনি বক্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ এবং মানুষের মন কিভাবে আপনার বক্তব্যের ধরে রাখবেন যে সারা বিদায় বক্তব্য কিভাবে প্রকাশ করা হয় সেই সম্পর্কে আলোচনা  ।

  সর্বপ্রথম আপনার কথা স্পষ্ট এবং ধীরস্থির হতে হবে ।  যেন বক্তারা কথা বুঝতে পারে এবং মনোযোগ দিয়ে ।  আপনার কথার মাঝে থাকতে হবে যেন শ্রোতাদের বিরুদ্ধে কোন প্রকাশ সমস্যা না হয় ।  তাদের মাঝে এমন কিছু বক্তব্য তুলে ধরতে হবে তাহলে আপনার কথা অতি মনোযোগ দিয়ে শুনতে বাধ্য হয় ।  তাই চলুন দেখি নেয়া যায় বক্তব্য শুরুতে কি বলতে হয় এবং বিদায়ী বক্তব্য কিভাবে দিতে হয় সেই সম্পর্কে নিচে নিম্নলিখিত দেওয়া হয়েছে । 

 বক্তব্য শুরুতে কি বলতে হয়?

সাধারণ বক্তারা বক্তব্য  শুরু করার আগে বিভিন্ন রকম বক্তব্য দিয়ে থাকে  । অধিকাংশ বক্তব্যই মন এবং দৃষ্টি আকর্ষণ করতে ব্যর্থ হয়ে যায় ,  কেননা তারা তাদের ভক্তদের মাঝে ভক্তদের দৃষ্টি আকর্ষণ করার মত কিছু বক্তব্য না  করার কারণে এই সকল সমস্যা  হয়ে থাকে ।  তাই আপনাদের আজকে আমি এমন কিছু টিপস দেবে যে সকল টিপস মেনে চললে শ্রোতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ সবসময় আপনার উপর থাকবে .  তাই আসুন আলোচনা বেশি না বাড়িয়ে দেখে নেয়া যাক সে সকল টিপস গুলো,

  • বক্তব্যের শুরুতেই অবশ্যই আপনাকে শ্রোতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে হবে । 
  • এছাড়াও আপনি কোন বিষয়ে বক্তব্য দিতে চাচ্ছেন সেই বিষয়ে শ্রোতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে ।
  • এরপর বক্তার যে বক্তব্য রয়েছে তা সুস্পষ্টভাবে ছোটদের মধ্যে পেশ করা । 
  • এছাড়া আপনি কি কাজ করতে পারেন, সেটা হচ্ছে আপনি কোন বিষয়ে এগুলির মধ্যে শ্রোতাদের সামনে  তুলে ধরতে চান সে বিষয়ে পরিষ্কার জানানো । 

এছাড়া আর কিছু দিক নির্দেশনামূলক কথা বলা যেতে পারে ।  সাধারণত আপনি শ্রোতাদের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য কিছু তথ্য বা গল্প বলতে পারেন যা আপনার শ্রোতার মনোযোগ ধরে রাখতে সাহায্য করবে । আপনি আপনার শ্রোতার সামনে এমন কিছু বক্তব্য তুলে ধরুন যেগুলো আপনার শ্রোতার আত্মবিশ্বাস অর্জন করতে পারেন ।  আপনি আপনার শ্রোতার চোখের দিকে তাকিয়ে তাদের মনোযোগ আপনার দিকে করে নিতে পারেন । আপনি যে সকল বক্তব্য দিবেন সে সকল বক্তব্যের মধ্যে কঠিন এবং জটিল কিছু কথা  যা  এড়িয়ে চলুন । আপনি যদি আপনার বক্তব্য শুরুটা ভালো করতে পারেন তাহলে  শ্রোতাদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে এবং তাদের বক্তব্য আগ্রহী করতে সাহায্য করবে । 

তাই এবার আসুন জেনে নেয়া যাক বিদায়ী বক্তব্য  কিভাবে দিতে হয় ।  অফিস আদালত বাজে কোন প্রতিষ্ঠান থেকে বিদায় নিতে হলে এ সকল বক্তব্যের মাধ্যমে বিদায় নিতে ।  অনেকেই জানে না বা মাথায় আসেনা কোন বক্তব্যের মাধ্যমে সকল প্রতিষ্ঠান থেকে বিদায় নিতে হয় । 

বিদায়ী বক্তব্যঃ

প্রিয় সহকর্মীবৃন্দ,

সকলকে জানাই আমার অন্তরের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ এবং ভালোবাসা ।

বিগত [ সংখ্যা ] বছর ধরে আপনাদের সাথে হাতে হাত মিলে কাঁধে কাঁধ রেখে একসাথে কাজ করতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত । এই স্বল্প সময়ের মধ্যে আমি আপনাদের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখেছি এবং বেড়ে উঠেছি । 

যতদিন আপনাদের সাথে আমি সময় কাটিয়েছি সেই সময় গুলো সারা জীবন স্মৃতি হয়ে রবে । আমরা এর সাথে অনেক বড় বড় চ্যালেঞ্জের মোকাবেলা করেছি এবং সাফল্য অর্জন করেছি ।  এই সময় গুলো কখনো ভুলবার নয় । আপনাদের সবার প্রতি আমি অনেক কৃতজ্ঞতা । আপনাদের সাহায্যে আজ আমি একজন ভালো সহকর্মী এবং ভালো মানুষদের পেয়ে গেছি । আজকে শুধুমাত্র আপনাদের জন্য সম্মানের সহিত গর্বের শহীদ এই প্রতিষ্ঠান থেকে বিদায় নিচ্ছি ।  আমি  আপনাদের সকলকে পরবর্তী কর্মজীবনের শুভ কামনা জানাই ।  আমি আশা করি আপনারা সবাই সুস্থ এবং সুন্দরভাবে জীবন যাপন করবেন । 

ধন্যবাদ 

এছাড়াও আরো কিছু দিক নির্দেশনামূলক কথাবার্তা বলতে পারেন আসুন তারে দেখে নেবে সেই সব দিক নির্দেশনা গুলো । 

 দিকনির্দেশনাঃ

সাধারণত আপনি আপনার মনের যে আবেগগুলো সেগুলো প্রকাশ করতে ভয় পাবেন না । আপনার যেগুলো সহকর্মী রয়েছে সেগুলো সাথে যে সকল অনুভূতিগুলো সৃষ্টি হয়েছিল সেই অনুভূতিগুলো প্রকাশ করবেন । এটি একটি ভালো বিদায়ী বক্তব্য হতে পারে আপনার সহকর্ম ।  এছাড়া আপনি তাদের দুর্বল মনোবল কে  চাঙ্গা করে দিতে পারেন ।  তাই এ সকল বক্তব্যের মাধ্যমে একটি  যেকোন প্রতিষ্ঠান থেকে বিদায় নিতে পারে ।  আজকের মধ্যে এটি ছিল বিদায়ী বক্তব্য। । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *