June 15, 2024
মাথা ব্যাথা কোন রোগের লক্ষণ ও ঔষধ । মাথা ব্যাথার হলে করণীয় ও ঘরোয়া চিকিৎসা । Head pain medicine name

মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ? মাথা ব্যথার ঘরোয়া চিকিৎসা ও ঔষধ । আজকের মূল আলোচনা হবে এই দুটি বিষয় নিয়ে ।  আমরা জানি বিভিন্ন কারণে মাথাব্যথা হতে পারে ।  এছাড়া আরো অনেকগুলো আমাদের অজানা কারণ রয়েছে যেগুলো আজকের এই আলোচনায় প্রকাশিত হবে ।

যেমন পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম না হলে মাথা ব্যাথা হতে পারে । মাথার মধ্যে ধুলাবালি বা ময়লা থাকলে ব্যাথা করতে পারে ।  এছাড়া নানান রকম কারণেই মাথা ব্যাথা হতে পারে ।  চলুন  তাহলে দেখে নেয়া যাক কি কি কারণে মাথা হয় এবং মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণ । মাথা ব্যথার বিভিন্ন রোগের লক্ষ্য হতে পারে এর সাধারণ কিছু কারণ  উল্লেখ করা হলো

মাথা ব্যথা কোন রোগের লক্ষণঃ

  • মাইগ্রেন এটি একটি তীব্র ব্যথা স্পন্দিত মাথাব্যথা যার প্রায় সই চোখের চারপাশে ব্যাথার অনুভব হয় , বমি বমি ভাব হয় এবং বমিও হয় । 
  • ক্রমশ যে মাথার উপরে অংশে বা পিছনে সংকোচেনের মতো অনুভব হয় এটি হচ্ছে টেনশন হেডেক ।
  • চোখের পিছনে ক্রমশই এই ব্যথা ঘটে থাকে এটির নাম হচ্ছে ক্লাস্টার হেডেক ।
  • মাথার উপরে মুখ মন্ডলে যে সকল ব্যাথা হয় এই সকল ব্যথাকে সাইনাস ইনফেকশন  বলা হয় ।
  • মস্তিষ্ক এবং মেরুদন্ডের আস্তরণের প্রদাহ যা মাথাব্যথা জ্বর এবং ঘাড় শক্ত হওয়ার কারণ হতে পারে এটি কি বলা হয় মেনিনজাইটিস । 
  • মাথা ব্যথা দৃষ্টির সমস্যা এবং অন্যান্য স্নায়ুবিক সমস্যা হাতে পারে এগুলো হচ্ছে ব্রেন টিউমারের লক্ষণ ।
  • ব্লাড প্রেসার বা উচ্চ রক্তচাপের কারণে মাথাব্যথা করতে পারে । 
  •  ডায়াবেটিস অতিরিক্ত ডায়াবেটিসের কারণে মাথাব্যথা এবং অন্যান্য  লক্ষণগুলো দেখা দিতে পারে ।

মাথা ব্যাথা যদি তীব্র ও দীর্ঘই হয় তাহলে অবশ্যই একজন ভালো ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করানো উচিত ।  কেন নয় অল্প সমসসা থেকে বড় সমস্যা সৃষ্টি হয় ।  তাই অবহেলা না করে ভালো একজন  আপনার সমস্যার কথাগুলো জানেন ।  তিনি যে সকল পরামর্শ দেন সেই সকল পরামর্শ অনুযায়ী কাজ করবেন ।

এছাড়া মাথাব্যথার জন্য কিছু সতর্কতা অবলম্বন করা যেতে পারে যেমন,  পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম হলে মাথা ব্যাথা কমতে পারে ।  পর্যাপ্ত পানি পান করুন । এছাড়া আরো অনেকগুলো কাজ রয়েছে যেগুলো পারলে মাথা ব্যথা কমতে সাহায্য করে । এরপর আমরা জান বলছি মাথাব্যথা হলে ঘরোয়া পদ্ধতিতে কিভাবে এর চিকিৎসা প্রদান করব । তাই আসুন জেনে নেওয়া যাক মাথা ব্যাথা হলে ঘরোয়া পদ্ধতিতে কি কি কাজ করতে পারি,

আরও পড়ুন

 মাথা ব্যথার ঘরোয়া চিকিৎসাঃ

প্রথমত একটি পদ্ধতি অবলম্বন করব সেটা হচ্ছে পর্যাপ্ত বিশ্রাম ও ঘুম দিলে অনেক সময় দেখা যায় মাথা ব্যথা কমে গেছে । পর্যাপ্ত পরিমানে ঘুম ও বিশ্রামের ফলে শরীরের পেশিগুলো শীতল হয় এবং ব্যথা কমে যায় । এছাড়া মাথা ব্যথার জন্য মাথা টিপে নিলে ব্যথা কমে যেতে পারে । কেননা যখন ব্যাথা এক জায়গায় থাকে তখন টিপে দিলে ব্যথাটি ছড়িয়ে চতুর দিকে আস্তে আস্তে কমে যায় । আসুন আরও কয়েকটি মাথা ব্যথা কমানোর ধাপ দেখে নেইঃ

  • অতিরিক্ত মাথা ব্যাথা হলে ঠান্ডা বা গরম সেঁক দিক । গরম সেঁক মাথার রক্ত চলাচল করতে সাহায্য করবে আর ঠান্ডা সেঁক মাথার পেশি গুলোকে শীথিল করে ব্যথা কমাতে সাহায্য করবে ।
  • লেবুর রস পান করতে পারেন । এর রস দিয়ে মাথা মেসেজ করতে পারেন । লেবুতে রয়েছে অ্যাসকরবিক অ্যাসিড যা কমাতে সাহায্য করে ।
  • আপনি কফি খেতে পারেন ।  কফিতে রয়েছে ক্যাফিন যা আমি মাথা ব্যাথা কমাতে সাহায্য করে । 
  • এছাড়া আপনি লবঙ্গের তেল মাথায় ব্যবহার করতে পারেন বা মাথায় মেসেজ করতে পারেন । 
  • ডিহাইড্রেশন এর কারণে মাথা ব্যাথা করতে পারে ।  তাই পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করুন । 
  • পর্যাপ্ত ঘুম না হওয়ার কারণে মাথা ব্যাথা হতে পারে ।  তাই পর্যাপ্ত ঘুম দিন এবং নিয়মিত ঘুমান । 
  • এছাড়াও গরম চা খেতে পারেন আদা দিয়ে ।  আদাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম  যা ব্যাথা কমাতে সাহায্য করে । 
  • মধ্যপান ও  মদ্যপান থেকে বিরত থাকুন ।  কেননা এইসব কারণে মাথাব্যথা হতে পারে . ।
দিকনির্দেশনাঃ

উপরের এই সকল দিকনির্দেশনা মেনে কাজ করলে  অতি দ্রুত আপনার মাথাব্যথা কমে যাবে ।  এছাড়া যদি দেখেন যে আপনার মাথা ব্যথা থেকে তীব্রতর এবং দীর্ঘস্থায়ী হয় রয়েছে তাহলে একজন ভালো ডাক্তারের পরামর্শ নিন ।  যদি বড় কোন সমস্যা হয় তাহলে এই সকল ঘরোয়া উপায় দিয়ে নাও হতে পারে ।

এছাড়াও কিছু মাথা ব্যাথার ওষুধের নাম রয়েছে ।  যে সকল ওষুধ খেলে মাথা ব্যথা কমে যেতে পারে ।  তাই চলুন দেখে নেয়া যাক কি কি সেই ওষুধগুলো ,

 মাথাব্যথা ওষুধের নামঃ 

  1. অ্যাসিটামিনোফেন
  2. ইবুপ্রোফেন
  3. অ্যাসপিরিন

এগুলো খাওয়ার আগে অবশ্যই ডাক্তারকে বলবেন এগুলো ঔষুধের মধ্যে কোন ওষুধটি ভালো কাজ করে ।  যে ওষুধটি  ভালো অবশ্যই ডাক্তার সেটি খাওয়ার পরামর্শ দেবে । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *