December 9, 2023
কাট বাদাম এর উপকারিতা ও অপকারিতা । কাঠ বাদামের পুষ্টি উপাদান ।

বাদামের মধ্যে সব চেয়ে সুস্বাদু খাবার হচ্ছে কাট বাদাম । এ বাদামে রমে প্রচুর পরিমানে প্রোটিন, ফাইবার, ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ . । কাট বাদাম এর উপকারিতা সম্পর্কে জানা আমাদের খুব প্রয়োজন কেননা এই বাদাম আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারি । এই বাদাম আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষ্যে কেমন উপকারতি করে তা জানার বিষয় । আমাদের শরিরের জন্য কতটা উপকারিতা নিয়ে আস্তে পারে সেটাই জানা খুব প্রয়োজন ।  প্রতিনিয়ত আমরা বিভিন্ন রকম খাদ্য খেয়ে থাকি আসলে আমরা জানি না যে কোন খাবারে কোন কোন পুষ্টি উৎপাদন রয়েছে ।  তাই চলুন আজ দেখে নেই  

কাট বাদাম এর উপকারিতাঃ

  • কাঠবাদাম সাধারণত আমাদের হৃদরোগের ঝুঁকি  কমায় ।  কাঠ বাদামি রয়েছে অসম্পৃক্ত চর্বিতে সমৃদ্ধ ম্যাগনেসিয়াম যা উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ রাখতে সাহায্য করে ।
  • এছাড়াও ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে । শরীরে মধ্যে রক্তের শর্করা নিয়ন্ত্রণ রাখার সাহায্য করে ।  এই বাদামের  মধ্যে রয়েছে ফাইবার যা রক্তের শর্করা হঠাৎ বৃদ্ধ রোধ করে  । 
  • শরীরের ওজন কমাতে সাহায্য করে ।  কাঠ বাদাম ক্ষুধা নিবারণের সাহায্য করে যা ক্ষুদা কমাতে সহায়ক । এই বাদামের মধ্যে থাকা প্রোটিন এবং ফাইবার হজম প্রক্রিয়াকে ধীরে ধীরে ধীরস্থির করে দেয় যা দীর্ঘ সময় ধরে পেট ভরা রাখ । 
  • এছাড়াও ক্যান্সারের ঝুঁকি থেকে বাঁচাতে সাহায্য হয় ।  এই বাদামের মধ্যে রয়েছে একটি এক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ ,  যা ক্যান্সারের বৃদ্ধি রোধ করতে সাহায্য করবে ।
  •  এরপর স্মৃতিশক্তি  বাড়াতে সহায়তা করে। এই বাঁধন খেলে মস্তিষ্কের কার্যকারিতা উন্নত করে ।  এতে থাকা ভিটামিন ও ফলিক অ্যাসিড এসিড স্মৃতিশক্তি বাড়তে সাহায্য করে । \
  • ত্বক ফর্সা এবং মসৃণ রাখে ।  দেহের মধ্যে যে সকল ত্বকের কোষ গুলো রয়েছে সেগুলোকে আবার পুর্রজ্নম করতে সাহায্য করে । এই বাদামে থাকা ভিটামিন ই ত্বককে  মসৃণ ও উজ্জলের রাখতে সাহায্য করে ।  

এই সমস্ত পুষ্টি ভিটামিন জাতীয় কাঠ বাদামের মধ্যে সমৃদ্ধ থাকে ।  কাঠ বাদাম খাওয়া আমাদের শরীরের জন্য অনেক উপকারিতা আমরা নিজের চোখে লক্ষ্য ।  বিভিন্ন রকম ফাইবার এবং ভিটামিন দ্বারা সমৃদ্ধি এই সুস্বাদু খাবারটি ।  তবে কাঠ এর কিছু অপকারিতা রয়েছে । আসুন দেখে নেই কাঠ বাদামের অপকারিতা সম্পর্কে,

আরও পড়ুন

কাট বাদাম এর অপকারিতাঃ

কাঠ বাদাম খাওয়ার কোন নির্দিষ্ট পরিমাণ নির্ধারণ করা হয়নি তবে প্রতিদিন 28 গ্রাম কাঠ বাদাম খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী ।  এর থেকে বেশি পরিমাণে খেলে যে সকল সমস্যা হতে পারে তা নিচে নেমে লিখিত করা হলো ,

  • এই বাদামের মধ্যে সাধারনত ফাইবার দ্বারা সমৃদ্ধ যা অনেকের ক্ষেত্রে হজম  সমস্যার কারণ হতে পারে ।
  •  এছাড়াও এই ভাদাইমার মধ্যে সাধারণত এলার্জেন রয়েছে ।  যদি কোন ব্যক্তির এলার্জি থেকে থাকে  তাহলে কাঠবাদাম না খাওয়াই অনেক ।  আর যদিও খান যদি কোন লক্ষণ দেখা দেয় তাহলে অবশ্যই একজন ভালো ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে চিকিৎসা করবেন । 

তবে নিয়মমাফিক খেলে সকল সমস্যা হতে পারে ।  খুব কম মানুষেরই এরকম সমস্যা দেখা দিতে পারে তবে নিয়ম করে খাওয়া অনেক ভালো ।  পরিমাণ মতো খেলে স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী এবং উপকারীতা থেকে ঝুঁকি কমায়। এছাড়াও আমাদের শারীরিক জীবনের চলাচল করতে গেলে বিভিন্ন ধরনের  পুষ্টিকর খাদ্য খাওয়া উচিত । আর এসব পুষ্টি সাধারণত ফলমূল জাতীয় জিনিসের মধ্যে বেশি থাকে তাই  প্রতিনিয়ত ফল বা শাক সবুজ শাকসবজি খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *